‘মুক্তিপণ আদায়ে খালেদা জিয়াকে কারাগারে রাখা হয়েছে’

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার কাছ থেকে আবারও একতরফা নির্বাচনের দাবি আদায় করতেই এখনও তাকে কারাগারে আটকে রাখা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী।

বুধবার(২১ মার্চ) রাজধানীর নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ মন্তব্য করেন তিনি।

রিজভী বলেন,‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনারর উদ্দেশ্য খালেদা জিয়ার কাছ থেকে একতরফা ভোটের জন্য মুক্তিপণ আদায় করা। তিনি চান বেগম জিয়া যেন তার ভোটারবিহীন নির্বাচনে সমর্থন দিয়ে আবারও তাকে প্রধানমন্ত্রী থাকার সুযোগ করে দেন। কিন্তু শেখ হাসিনা মনে হয় ভুলে গেছেন খালেদা জিয়া এরশাদের অধীনে নির্বাচনে না গিয়ে আপসহীন উপাধি পেয়েছিলেন।

একতরফা নির্বাচন বিপদমুক্ত করতেই খালেদা জিয়াকে কারাগারে রাখা হয়েছে দাবি করে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার একতরফা ক্ষমতা গ্রহণের পথে বেগম জিয়াকে বাধা মনে করেন। তাছাড়া বেগম জিয়ার জনপ্রিয়তাও প্রধানমন্ত্রীর মনে জ্বালা ধরায়। এজন্য তাকে (খালেদা) কারাগারে আটকে রেখেছেন।

‘খালেদা জিয়ার জামিন স্থগিতে সরকারের কোনো হস্তক্ষেপ নেই’গতকাল আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের এমন বক্তব্যের জবাবে রিজভী বলেন, ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্য ‘ঠাকুর ঘরে কেরে, আমি কলা খাইনি’ প্রবাদের মতো।

খালেদা জিয়ার উপর চাপ প্রয়োগ করে কোনো লাভ হবে না জানিয়ে তিনি বলেন, জনগণ বিশ্বাস করে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতেই খালেদা জিয়াকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তার নামে দায়ের করা মামলা রাজনৈতিক। তাকে মিথ্যা মামলার রায়ে কারাগারে পাঠানো রাজনৈতিক। তার জামিন বিলম্ব রাজনৈতিক এমনকি জামিন স্থগিতও রাজনৈতিক।

এসময় তিনি আরও বলেন, আমি চ্যালেঞ্জ করে বলতে চাই, এদেশে সুষ্ঠু নির্বাচন হলে বিএনপি বিপুল ভোটে জয় লাভ করে ক্ষমতায় আসবে।

দুর্ণীতি দমন কমিশন(দুদক)এর সমালোচনা করেন রিজভী বলেন, ‘দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিজস্ব প্রতিষ্ঠান। সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা রাষ্ট্রীয় দায়িত্বে থাকে অথচ তাদের ব্যাপারে দুদক রাতকানা বাদুড়ের মতো আচরণ করছে। খালেদা জিয়া ও বিএনপির পেছনে পড়ে থাকতেই যেন দুদকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

‘খালেদা জিয়া বের হতে পারবেন না’অ্যাটর্নি জেনারেলের এমন বক্তব্য তুলে ধরে রিজভী বলেন, সরকারের হীন উদ্দেশ্য বাস্তবায়ন করতে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম কাজ করছেন। মনে হচ্ছে তিনি চীফ জাস্টিসের উপরে।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আতাউর রহমান ঢালী, যুগ্ম মহাসচিব খাইরুল কবির খোকন, টাঙ্গাইল জেলা বিএনপির সভাপতি কৃষিবিদ শামসুল আলম তোফা, মুক্তিযোদ্ধা দলের সভাপতি ইশতিয়াক আজিজ উলফাত প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।